উৎপাদনশীলতা ও বিভিন্ন জাতের ছাগল

উৎপাদনশীলতার উপর ভিত্তি করে ছাগলের জাতের শ্রেণীবিন্যাস করা যেতে পারে।

বিভিন্ন জাতের ছাগল

দুধ উৎপাদনকারী ছাগল (হাই): আলপাইন ,অ্যাংলো সানেন,টোগেনবার্গ ছাগল। উৎপত্তি সুজারল্যান্ড। নাতিশীতোষ্ণ ও জলাসিক্ত অঞ্চলে পালন উপযোগী ছাগলের জাত।

দুধ উৎপাদনকারী ছাগল (মাঝারি): বারবারি, বিটল,মালাবার, মারওয়ারি, যমুনাপারি ইত্যাদি। উৎপত্তি ভারত। গরম ও শুষ্ক অঞ্চলে পালন উপযোগী।

goat

মাংস উৎপাদনকারী ছাগল: বোয়ার,ফ্রিজিয়ান,উৎপত্তি দক্ষিণ আফ্রিকা। গ্রীষ্ম ও শুষ্ক অঞ্চলে উপযোগী।
ব্লাক বেঙ্গল,বাংলাদেশ। মা-টু,চীন।সিরোহি,,ভারত।সুদান ডেজার্ট ,সুদান। উপ-গ্রীষ্ম ও আর্দ্র অঞ্চলে উপযোগী।

দুধ ও মাংস উৎপাদনকারী ছাগল: ব্লাক বেদুইন,উৎপত্তি, ইসরাইল ও মিশর।গ্রীষ্ম ও শুষ্ক অঞ্চলে উপযোগী।

অধিক বাচ্চা উৎপাদনকারী ছাগল: ব্ল্যাক বেঙ্গল, বাংলাদেশ। বারবারি, ভারত।বোয়ার,দক্ষিণ আফ্রিকা। মা-টু,চীন।কাইওল্লা,দক্ষিণ আমেরিকা। কাটজাং,ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া। উপ-গ্রীষ্ম ও আর্দ্র অঞ্চলে উপযোগী।

উন্নতমানের চামড়া উৎপাদনকারী ছাগল: ব্ল্যাকবেঙ্গল,বাংলাদেশ।মারাডি,নাইজেরিয়া।মুবেনডি,উগান্ডা।
গ্রীষ্ম ও শুষ্ক অঞ্চলে উপযোগী।


Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *